issue_cover
x

ভুতুড়ে ট্যাক্সি
সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

মন্দিরের চুড়োয় হলুদ কলসী বসানো। ও দেখল, ট্যাক্সিড্রাইভারের চোখ প্রায় বোঁজা। পপনের ভীষণ ভয় হল। চেঁচিয়ে উঠল, এ আমায় কোথায় এনে ফেললেন।” ট্যাক্সি ড্রাইভারের চটকা ভেঙে গেল যেন, আর সঙ্গে সঙ্গে ট্যাক্সি আবার ফিরে এল এ পি সি রায় রোডে।

f
x
x

কুকুল আর এলোমেলো
গীতা বন্দ্যোপাধ্যায়

জমি শুঁকে শুঁকে শেষে ওরা আমাদের বাড়িতেই এসে হানা দিল। আমি তো গোড়ায় অনুসন্ধানের ব্যাপারটা বুঝতে পারিনি। ফাঁদে পড়ে গিয়ে শেষে যা হয়-একেবারে বোকামুখ।

রাসবিহারী অ্যাভেনিউতে ফ্যা ফ্যা করে ঘুরছি-ঠিক সেই সময়েই..

c

ফ্ল্যাট রেস
জরাসন্ধ

সেদিন শুনলাম কুহু আর কেকাতে আড়ি হয়ে গেছে। হামেশাই হয়ে থাকে। যেখানে যত ভাব, সেখানে তত আড়ি। ওরা তো ছেলেমানুষ। বড়রাও কম যান না। এই তো কদিন আগে মিসেস কাঞ্জিলাল বলছিলেন ওঁদের ‘গৃহলক্ষী ক্লাব’-এর মেম্বার ছিলেন পঞ্চান্ন, কমে কমে পঁয়ত্রিশে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণটা কী? না, এর সঙ্গে ওঁর মুখ…

f
x
x

নোট ভাঙালে কাঁঠালপাতা
মনোজ বসু

এক রাত্রে স্বপ্নের মধ্যে কে যেন বলল, জঙ্গলে কাঁটাবনের মধ্যে আমায় ফেলে দিয়েছে, বড্ড কষ্টে আছি। তুমি আমায় উদ্ধার করে নিয়ে যাও সাধুচরণ। ভোর হতে না হতে সাধুচরণ ছুটোছুটি করে জঙ্গলে গেল। পেয়ে গেল বিগ্রহ, ঠাকুরঘরে জলচৌকির উপর এনে বসাল। নাক নেই বিগ্রহের, মাথারও কিছু অংশ ভাঙা। সাধুচরণের বউ মনোরমা তাই…..

c

1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 >