issue_cover
x

হাওয়া বদল
আশাপূর্ণা দেবী

গ্রামের জ্ঞাতি কবরেজ-ঠাকুর্দা, কলকাতার নাতি নিমাইচরণের বাড়িতে এসে দাঁড়ানো মাত্রই প্রায় ধিক্কারের গলায় বলে উঠলেন, ‘‘কী রে নিমে, সংসারের মালপত্তর শুধু নিজের পেটেই চালান করিস? ছেলেমেয়েগুলোকে স্রেফ হাওয়া খাইয়ে রাখিয়?’’

f
x
x

অশরীরী
লীলা মজুমদার

এখন আমি একটা সাধারণ কাগজের আপিসে কাজ করলেও, এক বছর আগেও একটা সাংঘাতিক গোপনীয় কাজ করতাম। সে কাউকে বলা বারণ। বললে আর দেখতে হত না, প্রাণটা তো বাঁচতই না, তার ওপর সব চাইতে খারাপ কথা হল যে, চাকরিটাও চলে যেত। তবে এটুকু বলতে দোষ নেই যে, কাজটা ছিল খবর সংগ্রহ করা। কোথায়, কেন, কার জন্য সে-সব তোমরাই ভেবে নিও।

c

রাক্ষস
গৌরাঙ্গ বন্দ্যোপাধ্যায়

বাড়ির পাশের খেলার মাঠটাতে ঝগড়া বেধে গেল সেদিন খুব। অনেক লোক জড় হয়ে গেল। পাড়ার দু’-একজন বুড়ো ভদ্রলোকও এসে হাজির হয়েছিলেন। কী যেন বলছিলেন হাত নেড়ে নেড়ে।

f
x
x

ক্যামেরা
পার্থ চট্টোপাধ্যায়

ওগুলো কি সেই একই ধরনের ছায়া-মূর্তি? এই ক্যামেরায় জাপানী মালিকের মৃত্যুর আগেও তার ছবিতে এমন ছায়া-মূর্তি ফুটে উঠেছিল। তাড়াতাড়িতে জেনেও নেওয়া হয়নি ছেলেটি কে। কিন্তু কেন যেন মনে হতে লাগল ওই ফুটফুটে কিশোর ছেলেটির সামনে একটা বিরাট বিপদ।

c

1 2 3 4 5 6 7 8 9 >