issue_cover
x

লালটেম
শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়

লালটেম কারো পরোয়া করে না। সে আছে বেশ। সকালবেলা সে তিনটে মোষ নিয়ে চরাতে বেরোয়। এ জায়গাটা ভারী সুন্দর। একদিকে বেঁটে-বেঁটে চা-বাগানের দিগন্ত পর্যন্ত বিস্তার।

f
x
x

হরিণের কান্না
অমরেন্দ্র চক্রবর্তী

লঞ্চে চলেছি, মাথার ওপর চিল ডাকছে ঠিকই, কিন্তু লঞ্চের ভট-ভট শব্দে স্পষ্ট শুনতে পাচ্ছি না। মাঝে-মাঝে ছোঁ মেরে জল থেকে মাছ তুলে নিয়ে দূরে উড়ে যাচ্ছে দেখতে পাই। আরও দূরে, আকাশের অনেক উঁচুতে তিন-চারটে চিল মানুষের হাই তোলার ভঙ্গির মতন আলতোভাবে ভেসে রয়েছে।

c

কালোদার গল্প
সুব্রত সেনগুপ্ত

পল্টু হঠাৎ জিজ্ঞেস করল, কালোদা কোথায় রে? পেছন ফিরে দেখি কালোদার সঙ্গে সেই টিপ পরীক্ষাওয়ালার কী নিয়ে তর্ক হচ্ছে। বেশ কিছু লোক জুটে গেছে। কী ব্যাপার? সামনে গিয়ে শুনি, কালোদা টিপ পরীক্ষার জন্য যে পয়সা দিতে হয়, দিয়ে বন্দুক নিয়েছিল। তারপর পরপর গুলি ছুঁড়ে লোকটার অর্ধেকের বেশি বেলুন ফাটিয়ে দিয়েছে।

f
x
x

ফুটবল আর ফুলকাকা
সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

পপনের মেজকাকা বললেন, ‘‘তাই হোক। তুই আজ গিয়েছিলি খেলার মাঠে যে বলছিস?’’
পপনের বাবা বললেন, ‘‘আমি না যাই, মানু গিয়েছিল। তাছাড়া এ তো আর আজ নতুন হচ্ছে না।’’

c

1 2 3 4 5 6 7 8 9 >