issue_cover
x

তুতুনের ঘুমের ওষুধ
শেখর বসু

তুতুনের সব ভাল। তুতুন পড়তে পারে, লিখতে পারে, ছড়া মুখস্থ বলতে পারে। ওর দোষ শুধু একটাই। তুতুন না…

তুতুনের মা এইভাবে কারও সঙ্গে কথা শুরু করলে তুতুন বুঝতে পারে, মা কী বলতে চাইছে। ও তখন ছুটে গিয়ে মায়ের মুখের ওপর ছোট-ছোট হাতদুটো চেপে ধরে বলে, ‘‘মা বোলো না, বোলো না।’’

তাই না শুনে মা মুখ টিপে হেসে বলে, ‘‘ঠিক আছে, বলব না, কিন্তু  তুমি আর কক্ষনো খাবে না তো?’’

তুতুন দুপাশে মাথা ঝাঁকিয়ে বলে, ‘‘না’’।

f
x
x

প্ল্যানচেট
পার্থ চট্টোপাধ্যায়

আমি বললাম, ‘‘আচ্ছা সুকুমারবাবু, আপনার তো এত অভিজ্ঞতা, বনে-জঙ্গলে ঘোরেন, কোনদিন ভূত দেখেছেন?’’
সুকুমারবাবু এ প্রশ্নের জন্য ঠিক তৈরি ছিলেন না। বললেন, ‘‘ভূত? না মশায়, ভূত সম্পর্কে কোনদিন কিছু ভাবিনি। আমার নিজের কোন অভিজ্ঞতা নেই। তবে তুষারবাবু হয়ত এ বিষয়ে আপনাকে কিছু আলোকপাত করতে পারবেন। কারণ তুষারবাবু একটু আধটু প্রেতচর্চা করে থাকেন।’’

c

লালটেম
শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়

লালটেম কারো পরোয়া করে না। সে আছে বেশ। সকালবেলা সে তিনটে মোষ নিয়ে চরাতে বেরোয়। এ জায়গাটা ভারী সুন্দর। একদিকে বেঁটে-বেঁটে চা-বাগানের দিগন্ত পর্যন্ত বিস্তার।

f
x
x

হরিণের কান্না
অমরেন্দ্র চক্রবর্তী

লঞ্চে চলেছি, মাথার ওপর চিল ডাকছে ঠিকই, কিন্তু লঞ্চের ভট-ভট শব্দে স্পষ্ট শুনতে পাচ্ছি না। মাঝে-মাঝে ছোঁ মেরে জল থেকে মাছ তুলে নিয়ে দূরে উড়ে যাচ্ছে দেখতে পাই। আরও দূরে, আকাশের অনেক উঁচুতে তিন-চারটে চিল মানুষের হাই তোলার ভঙ্গির মতন আলতোভাবে ভেসে রয়েছে।

c

1 2 3 4 5 6 7 8 9 >