issue_cover
x

স্পেস স্টেশনের কার্গো


পৃথিবীর মাটি থেকে ৪০০ কিলোমিটার উপরে মহাকাশ গবেষণাগার স্পেস স্টেশনে সপ্তমবার জরুরি সামগ্রী পাঠাল নাসা। ফ্লোরিডার কেপকার্নিভাল উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে বেসরকারি সংস্থার রকেট অ্যাটলাস ৫-এ করে সাড়ে তিন হাজার কিলোগ্রাম জিনিসপত্র নিয়ে ‘সিগন্যাস’ সম্প্রতি উড়ে গেল স্পেস স্টেশনে। ২০১৮ পর্যন্ত আরও তিনবার এমন কার্গো ওই মহাকাশ গবেষণাগারে পাঠাবে নাসা। এর এক মাস আগে সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার সফর শেষ করে স্পেস স্টেশন থেকে প্রশান্ত মহাসাগরে নেমে আসে স্পেস এক্স নামের আর-এক কার্গো ক্যাপসুল। এক মাস পর স্পেস এক্সের মতো সিগন্যাসও প্যারাশুটে পৃথিবীতে ফিরে আসবে।

আর্জেন্তিনায় উল্কাখণ্ড


আর্জেন্তিনার বুয়েনস আইরেসের উত্তর-পূর্বে ক্যাম্পো দেল সিলো এলাকায় খুঁজে পাওয়া গিয়েছে এক মহাজাগতিক পাথর। বিজ্ঞানীরা বলছেন, প্রায় চার হাজারেরও বেশি বছর আগে ৩০ টনের এই বিশাল উল্কাখণ্ডটি মহাকাশের বুক থেকে পৃথিবীতে এসে পড়ে। মাটির নীচে পাঁচ মিটার গর্তের মধ্যে ঢুকে গিয়েছিল এটি। সম্প্রতি তা উদ্ধার করেছেন আর্জেন্তিনার ‘চাকো অ্যাসোসিয়েশন অফ অ্যাস্ট্রোনমি’র বিজ্ঞানীরা। দু’ মিটার চওড়া এই পাথর খণ্ডটির নাম ‘গ্যানসিডো’। তবে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় উল্কাখণ্ড পাওয়া গিয়েছিল নামিবিয়ার। ৬০ টন ওজনের এই উল্কাখণ্ডর নাম ‘হোবা’। আশি হাজার বছর আগে এটি আছড়ে পড়ে পৃথিবীতে।