issue_cover
x
Sports

চ্যাম্পিয়ন মুগুরুজা, ফেডেরার


দু’বছর আগে বিশেষজ্ঞরা ধরেই নিয়েছিলেন রজ়ার ফেডেরার শেষ হয়ে গিয়েছেন। টেনিসকে নতুন করে আর কিছু তাঁর দেওয়ার নেই, গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতা তো অনেক দূরের কথা। কিন্তু চোট, আগাত সারিয়ে পঁত্রিশ বছর বয়সে টেনিসের ইতিহাসে অন্যতম সেরা প্রত্যাবর্তন ঘটালেন রজ়ার। ২০১৭ মরসুমে দু’-দুটো গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে নিলেন তিনি। বছরের শুরুতে জানুয়ারি মাসে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতে বিশেষজ্ঞদের ভুল প্রমাণ করে দিয়েছিলেন তিনি। সেটা ছিল জীবনের ১৮ নম্বর গ্র্যান্ড স্ল্যাম। জুলাইয়ে এসে উইম্বলডনেও আবার জয়ের হাসি হাসলেন। জিতে নিলেন কেরিয়ারের ১৯ নম্বর গ্র্যান্ড স্ল্যামটি। টেনিসের ইতিহাসে যা এক বিরল নজির। উইম্বলডনে কোনও সেট না হেরে এবছর চ্যাম্পিয়ন হলেন এই সুইস তারকা। তার সঙ্গে যোগ করতে হবে, গোটা টুর্নামেন্টে একটাও সার্ভিস গেম হারেনি ফেডেরার। যা এক অবিশ্বাস্য রেকর্ড। অষ্টমবার উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে ফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার মার্লিন চিলিচকে ৬-৩, ৬-১, ৬-৪ ফলে হারালেন ফেডেরার। অন্যদিকে মহিলাদের সিঙ্গলস জিতে নিলেন স্প্যানিশ তারকা গারবিনে মুগুরুজা। এর আগে ২০১৫ সালে উইম্বলডনের ফাইনালে উঠেও সেরেনা উইলিয়ামসের কাছে হেরে গিয়েছিলেন তিনি। তবে ২০১৭-র ফাইনালে তারই বোন ভিনাস উইলিয়ামসকে ৭-৫, ৬-০ ফলে হারিয়ে প্রথমবার সেন্টার কোর্টে ট্রোফি জিতলেন মুগুরুজা। ১৯৯৪ সালে কনচিতাইয়ের পর, আবার এবছর কোনও স্প্যানিশ মহিলা উইম্বলডন ট্রোফি জিতলেন।


সেমিফাইনালে ভারত


মহিলাদের ক্রিকেটে আবার নতুন পালক জুড়ল ভারতের মুকুটে। একদিনের ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি উইকেটের মালিক হয়ে গিয়েছেন ঝুলন গোস্বামী। এবার সেই একদিনের ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক হলেন ভারতীয় মহিলা জাতীয় দলের অধিনায়ক মিতালি রাজ। মহিলাদের মধ্যে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ছ’হাজার রানের গণ্ডিও পেরিয়ে গিয়েছেন তিনি। বস্তুত মিতালির সেঞ্চুরির সুবাদে ভারত শেষ গ্রুপ ম্যাচে নিউজ়িল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠে গেল। ম্যাচে ১২৩ বলে ১০৯ রান করেন মিতালি। ১১টা চারের সাহায্যে একদিনের ম্যাচে ষষ্ঠ সেঞ্চুরিটা করে ফেললেন তিনি। তবে ভারতের ব্যাটিংয়ে এদিন মারমুখী ছিলেন বেদা কৃষ্ণমূর্তি। তিনি ৪৫ বলে করেন ৭০ রান। ভারতের হয়ে হরমনপ্রীত কউরও (৬০) বড় রান পান। সব মিলিয়ে ৫০ ওভারে ভারত সাত উইকেটে ২৬৫ রান তোলে। জবাবে নিউজিল্যান্ড মাত্র ৭৯ রানে অল আউট হয়ে যায়। ভারতের হয়ে প্রথম বিশ্বকাপ ম্যাচে নামা কর্নাটকের ২৬ বছর বয়সি বাঁহাতি স্পিনার রাজেশ্বরী গায়কোয়াড় ১৫ রানে পাঁচটি উইকেট পান। যা তাঁর কেরি়য়ারে সেরা। সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে ভারত। গ্রুপ লিগে ভারত অবশ্য তাদের কাছে হেরেছিল। তবে সেমিফাইনালে ওঠার পর অধিনায়কের কথায়, ‘‘মেয়েরা এখন ফুঁসছে। আর পিছনে তাকানোর কোনও প্রশ্ন নেই।’’ অন্য সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা। আগামী ২৩ জুলাই লর্ডসে ফাইনাল খেলা হবে। প্রসঙ্গত, ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের কাছে এখনও বিশ্বকাপ ট্রোফি অধরা। ২০০৫ সালে কেবল রানার্স হয়েছিল তারা। এবার কি মিতালিরা পারবেন সেই খরা কাটাতে? অপেক্ষা আরও ক’দিনের।