issue_cover
x
Bizzare facts

ইরেজ়ার আসার আগে কীভাবে মোছা হত লেখা?

পেনসিলে লেখা কোনও জিনিস ভুল হলে তো আমরা তা টুক করে মুছে ফেলি ইরেজ়ার দিয়ে। এখন আমরা যে ইরেজ়ার ব্যবহার করি, তা তৈরি হয় রাবার কিংবা ভিনাইল নামের এক ধরনের রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছ এই ইরেজ়ার আসার আগে কীভাবে লেখা মোছা হত? ১৭৭০ সাল পর্যন্ত এই কাজে বহল পরিমাণে ব্যবহার করা হত পাঁউরুটি। যে সব পাঁউরুটি খাওয়ার যোগ্য থাকত না, ফেলে দেওয়া হত, সেই পাঁউরুটিগুলোই এই কাজে ব্যবহার করা হত। এগুলো খুব সস্তা হলেও একটা সমস্যা ছিল। খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যেত এগুলো। তাই এরপর বিকল্প কোনও জিনিসের খোঁজ শুরু হয়। সেখান থেকেই নানা পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে আজকের ইরেজ়ার আসে।



মশা-রাজার উৎসব

Bizarre-Facts-fb3গল্পকথা অনুযায়ী, পবিত্র রক্তের অধিকারী, মশাদের রাজা উইলি-ম্যান-চিউ বহু বছর আগে নিজের জন্য একটি স্বপ্ননগরী খুঁজছিলেন। সেই উদ্দেশ্যে বহু দিন ধরে, বহু দেশ ঘুরে অবশেষে টেক্সাসের ক্লুট নামের এক জায়গায় এসে রাজা দেখেন, সেই চত্বরে শয়ে-শয়ে নাদুসনুদুস মানুষ এক বিশাল মাঠের ইতিউতি ভীষণ হইহুল্লোড় করছে। ব্যস, দেখামাত্রই জায়গা রাজার মনে ধরে যায়। রাজামশাইয়ের মর্জি হয়েছে, তার পরেও পারিষদরা তো আর বেশিক্ষণ চুপ করে থাকতে পারেন না। রাজার নির্দেশে তাঁর ‘সোয়্যাট টিম’ (যার সদস্যরা আসলে মানুষ) অতএব সঙ্গে-সঙ্গে উৎসবের প্রস্তুতি শুরু করে দেয়। সেই থেকে বছর-বছর টেক্সাসের ক্লুটে ‘দ্য গ্রেট টেক্সাস মসকিউটো ফেস্টিভ্যাল’ হতে থাকল। এবছর এই উৎসব পা দেবে ৩৯ বছরে। না হয় মশা একটু রক্ত খেলই, তা বলে তাদের ছাড়া তো জীবন কাটানো অসম্ভব রে বাবা! তার চেয়ে না হয় ওদের মনে রেখে একটু আনন্দ-উৎসবই হল! বড় হয়ে কখনও জুলাই মাসের শেষে টেক্সাসে যেতে পারলে দারুণ এই উৎসব দেখে আসতে ভুলো না যেন!