issue_cover
x
Bizzare facts

বরফের শহর


কলকাতায় ঠান্ডা পড়ছে না বলে যাদের দুঃখ, তাদের কাছে ওয়েমাইকন শহরের কথা শোনানোই যায়। রাশিয়ার সাইবেরিয়া অঞ্চলের একটা ছোট্ট শহর ওয়েমাইকন। স্থানীয় নদী ওয়েমাইকনের নামেই ওই শহরের নাম। শহরের জনসংখ্যা পাঁচশো। গরমকালে এই শহরের তাপমাত্রা থাকে -৪৬ ডিক্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। আর শীতকালে -৬৭.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্তও তাপমাত্রা নামতে পারে। এত ঠান্ডা নাকি মাউন্ড এভারেস্টের চূড়াতেও নেই। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এই শহরে একটা বিমানঘাঁটি তৈরি করা হয়েছিল। এছাড়া ওয়েমাইকন শহরে বিশেষ কিছু হয়েছে বলে শোনা যায় না। তার মূল কারণ হল ওই হাড় হিম করা ঠান্ডা। আবহাওয়াও খুব শুকনো। ওই ঠান্ডায় কেমন করে থাকেন ওখানকার মানুষজন? দু’-একটি নমুনা দিলেই বিষয়টা বোঝা যাবে।
ওয়েমাইকন শহরের মানুষজনেরা সারারাত গাড়ি স্টার্ট করে রাখেন। গাড়ির স্টার্ট বন্ধ হয়ে গেলে পরের দিন সকালে গাড়ি নাও চালু হতে পারে। তখন ঘোর বিপদ। কারণ, অত ঠান্ডায় গাড়ি অকেজো হলে লোকে যাতায়াত করবেন কীভাবে? শুধু কি তাই? ওই শহরে কেউ মারা গেলে তাঁকে সমাধিস্থ করার জন্য মাটি খোঁড়ার আগে বরফ গলাতে হয়। তবে না ওই মৃত ব্যক্তিকে সমাধিস্থ করা যাবে!



নিলাম ডেকে শহর বিক্রি

হ্যাঁ, এমন ঘটনাই ঘটেছে। তবে এটা কোনও মহাভারত কিংবা মুঘল আমলের ঘটনা নয়, এই ঘটনা ঘটেছে ২০১২ সালে।মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। মার্কিন মুলুকের সবচেয়ে ছোট শহরের নাম, বুফোর্ড। দশ একরের এই ছোট্ট শহরে সবই আছে। এক কালে ওই শহরে থাকতেন হাজারদুয়েক লোক। ১৯৮০ সালে জন স্যামন্স নামের এক ভদ্রলোক সপরিবারে ওখানে থাকতে এলেন। ধীরে-ধীরে জন গোটা শহরটাই প্রায় কিনে ফেললেন। ১৯৯২ সালে জনের স্ত্রী যখন মারা যান, তখন তিনি একাই গোটা শহরে অধীশ্বর। ওই শহরের বাসিন্দা হিসেবে তখন থাকেন মাত্র দু’জন। জন আর তাঁর ছেলে। অতএব জনই তখন শহরের মেয়র। শহরের গ্যাস স্টেশন থেকে দোকানপাট সব তিনি আর ছেলে মিলে সামলাতেন। ২০০৭ সালে জনের ছেলে ওই শহর ছেড়ে চলে আসে আমেরিকার কলোরাডো শহরে। জন তখনও শহর আগলে পড়েছিলেন। কিন্তু ২০১২ সালে ৬১ বছর বয়সে জন ঠিক করেন, বৃদ্ধ বয়সে এভাবে একা থাকা তাঁর পক্ষে আর সম্ভব নয়। তাই তিনি শহরটা বিক্রি করে দেওয়ার জন্য একটি ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন দেন। আস্ত শহর এভাবে বিক্রি হচ্ছে দেখে গোটা আমেরিকা জুড়ে তো বটেই, বিশ্বের নানা প্রান্তেও হইচই পড়ে যায়। অনলাইনেই নিলাম হয়। আর নিলাম শুরুর ১১ মিনিটের মধ্যে সেই শহর বিক্রি হয়ে যায়। বৃদ্ধ জন বুফোর্ড শহর বিক্রি করেন ভিয়েতনামের দুই বাসিন্দাকে।