issue_cover
x

এই প্রথমবার বিশ্বকাপে এরকম দুরবস্থা দক্ষিণ আফ্রিকার। প্রথম তিনটি ম্যাচেই হেরেছে তাঁরা। প্রথমে ইংল্যান্ড, তারপর বাংলাদেশ এবং সবশেষে ভারতের কাছে। এখন এমনই অবস্থা যে, পরের ছ’টি ম্যাচ জিতলে তবেই বিশ্বকাপে টিকে থাকার একটা ক্ষীণ আশা থাকবে তাঁদের। অথচ এবারে তাঁদের বিশ্বকাপের সম্ভাব্য দাবিদার হিসেবেও ধরা হয়েছিল! এই সময় সমর্থকরা চাইছেন অবসর ভেঙে দলে ফিরে আসুক এবি ডি’ভিলিয়ার্স। এই প্রাক্তন ব্যাটসম্যানকে দক্ষিণ আফ্রিকার সেরা খেলোয়াড়দের অন্যতম হিসেবে ধরা হয়। এই অবস্থায় জানা গেল, বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দল ঘোষণার আগে নাকি নিজেই অবসর ভেঙে দলে ফিরতে চেয়েছিলেন ডি’ভিলিয়ার্স। কিন্তু তাঁর প্রস্তাব মেনে নেননি নির্বাচকরা। তার পিছনে অবশ্য অনেক কারণও ছিল। কারণ, তাঁকে দলে নিতে হলে এমন কাউকে বাদ দিতে হত, যিনি তাঁর অনুপস্থিতিতে দলের হাল ধরেছিলেন। সেটা নিঃসন্দেহে তাঁর প্রতি অবিচার হত। তাছাড়া একবছর আগে অবসর নিয়েছিলেন ডি’ভিলিয়ার্স। এই একবছরে বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করার মতো ঘরোয়া বা আন্তর্জাতিক, কোনও ম্যাচেই খেলেননি তিনি। তবে তাঁর অনুপস্থিতি যে বিশ্বকাপে হাড়ে-হা়ড়ে টের পাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা, এ কথা বলাই বাহুল্য!